1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:৪৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কেশবপুর পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম আবারো মেয়র পদে আওয়ামী লীগের চুড়ান্ত প্রার্থী পৌরসভা নির্বাচনে নালিতাবাড়ীতে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী বাছাই শ্রীবরদী পৌরসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভোটে আ’লীগের প্রার্থী বাছাই: বিজয়ী সফিক শেরপুর পৌর নির্বাচন : আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে তৃণমূলের ভোটে শেরপুরে আনিস বিজয়ী কেন্দ্রীয় নির্দেশনা উপেক্ষা প্রতিবাদে আ’লীগের এক মনোনয়নপ্রত্যাশীর সংবাদ সম্মেলন তুরস্কে হ‌বে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য,বাংলা‌দে‌শে হ‌বে আতাতুর্কের ভাস্কর্য অঝোরে কাঁদলেন অপু বিশ্বাস! দ্বিতীয় ধাপে ৬১ পৌরসভার ভোট ১৬ জানুয়ারি শেরপুরে মায়ের বিরুদ্ধে শিশুকে হত্যার অভিযোগ কেশবপুরে ৫শত বছর বয়সী বনবিবি তেঁতুল গাছটি সংরক্ষণের দাবি

ভোগাই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হয়েছে কয়েকটি গ্রাম

সাদ আল জুনায়েদ
  • Update Time : বুধবার, ২২ জুলাই, ২০২০
  • ১২১ Time View
শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে ফের ভোগাই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হয়েছে কয়েকটি গ্রাম।তলিয়ে গেছে আমন বীজতলাসহ ফসলি জমি। ভোগান্তি বেড়েছে কয়েক হাজার মানুষের।
বুধবার (২২ জুলাই) সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা গেছে, উপজেলার মরিচপুরান ইউনিয়নের কোন্নগড় বড়বাড়ি এলাকায় ভোগাই নদীর বাঁধ প্রায় ১শ মিটার এলাকাজুড়ে ভেঙ্গে প্রবল বেগে পাহাড়ি ঢলের পানি প্রবেশ করছে আশপাশের কয়েকটি গ্রামে। এতে ওইসব গ্রামের বেশকিছু ঘরবাড়িতে পানি উঠতে শুরু করেছে। ও্ই  এলাকার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে আমন বীজতলাসহ ফসলি জমি। ভেসে গেছে অসংখ্য পুকুরের মাছ। এছাড়াও ঢলের পানির সাথে বালি পড়ে বিনষ্ট হতে চলেছে ভাঙ্গন তীরবর্তী বেশকিছু আবাদী জমি। স্থানীয় ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন, সামান্য মাটির বাঁধের ফলে পাহাড়ি ঢল নামলেই প্রতিবছর ভোগাই নদীর বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গন দেখা দেয়। ফলে তারা স্থায়িত্বশীল বাঁধ নির্মাণের দাবী জানিয়েছেন,এছাড়া স্থানীয় ভুক্তভোগীরা জানান, তারা এই মুহুর্তে গো খাদ্য এবং বিশুদ্ধ পানির সংকটে আছেন।
উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা মো.আলমগীর কবীর বলেন,আমাদের উপজেলায় ১১শত হেক্টর আমনধানের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। আর বীজতলা ১৩শত হেক্টর করা হয়েছে। এ ছাড়াও আরো ১১ একর জমিতে আপদকালীনের জন্য রাখা হয়েছে।বন্যায় ওইসব এলাকায় মরিচপুরান,যোগানীয়া ও কলসপাড় ইউনিয়নে ১৫ টা গ্রামে  দুইশত হেক্টর বীজতলা ক্ষতি হয়েছে। পানি নেমে গেলে কৃষকরা যেন ক্ষতির মধ্যে না পরে তাই উপজেলা কৃষিঅফিস থেকে কৃষকদের মাঝে দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।