1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:২৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কেশবপুরের ডহুরী জলমহল হস্তান্তর করার পূর্বেই বিষ প্রয়োগ, ২৪ লাখ টাকার দেশীয় মাছের ক্ষতি শ্রীবরদীতে ইটভাটার পাহারাদার হত্যা মামলার তিন আসামী গ্রেফতার শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের নয়া কমিটির বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা। ধর্ষিতা কিশোরী অন্ত:সত্বা- ধর্ষণকারীর ফাঁসি চায় এলাকাবাসী কেশবপুরে মৎস্য ঘেরের ভেড়িতে গাঁজার চাষ, গ্রেফতার ১জন কেশবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১১ চিকিৎসকের পদ শূণ্য শুধুমাত্র বৈবাহিক বন্ধন থেকে আমাদের সম্পর্কের ইতি টেনে নিলাম! অপরিকল্পিত ভাবে বালু উত্তোলনে ক্ষতবিক্ষত ভোগাই ও চেল্লাখালী নদী ঝিনাইগাতীতে প্রিমিয়ার ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত শ্রীবরদীতে নিখোজের চার দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার

একমাত্র বাঁশের সাঁকোটিও ভেঙে গেছে, চরম দুর্ভোগে জনগণ

মীর আজিজ হাসান(কেশবপুর)যশোর।
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০
  • ৫২ Time View

যশোরের কেশবপুর উপজেলার ত্রিমোহিনী বাজার সংলগ্ন কপোতাক্ষ নদের উপর ঝুকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকোটি গত শুক্রবার দুপুরে ভেঙ্গে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে। তারপরও ওই সেতুটি পারাপারের একমাত্র মাধ্যম হওয়ায় জীবন জীবিকার তাগিদে এলাকার লোকজন ঝুঁকি নিয়ে ঔ বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছে। ফলে যেকোনো সময় ঘটে যেতে পারে দূর্ঘটনা। এলাকাবাসি ওই স্থানে একটি সেতু নির্মাণের দাবি জানিয়ে আসলেও স্বাধীনতার ৪৯ বছর পরও সে দাবি পূরণ হয়নি। ফলে জনমনে ব্যপক ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা গেছে, কেশবপুর উপজেলার অন্যতম ঐতিহ্যবাহী বাজার হলো ত্রিমোহিনী। এ বাজারের পাশ দিয়ে প্রবাহিত কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু নির্মাণ না করায় জনসাধারণ কখনো নৌকা, কখনো বাঁশের সাঁকোর তৈরি করে পারাপার হয়ে আসছে। অথচ অত্যান্ত গুরুপূর্ণ এই সেতুটি নির্মিত না হওয়ায় কেশবপুর, কলারোয়া, সাতক্ষীরা এলাকার হাজার হাজার মানুষ প্রতিনিয়ত চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে। সাঁকোর পশ্চিম পাশের লোকজনদের ঝুকি নিয়ে কেশবপুর কলেজ, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র, ব্যাংকসহ অসংখ্য বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে আসতে হয়। কেশবপুরে তাদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রও রয়েছে। মধুকবির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কেশবপুরের সাগরদাঁড়িতে প্রতিবছর ২৫ জানুয়ারী সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠিত মধুমেলা উপভোগ করতে বাঁশের সাঁকো দিয়ে হাজার হাজার লোকজন পার হয়।

এছাড়া প্রতি বছর ত্রিমোহিনী বাজারে বসে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের স্নান উপলক্ষে স্নান উৎসব। এসব উৎসব উপভোগ করতে আসা হাজার হাজার মানুষ চরম দূর্ভোগের শিকার হয় ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ত্রিমোহিনী বাজার সংলগ্ন কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু না থাকায় মানুষ তাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য নিয়ে বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে পারাপার হচ্ছে। কারো কাঁধে বেগুনের খাঁচি, কারো মাথায় সবজি, কারো কাঁধে ধান বা পাট। কলারোয়া থানার কৃষক আব্দুল হালিম, আব্দুল কুদ্দুস, হায়দার আলী, শরিফুল ইসলাম, জবান আলী, ইউনুস আলী, নজরুল ইসলাম, আব্দুল জলিল, তরিকুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী, আমিনুর সানা সহ অনেকে বললেন সেতু না থাকায় যানবাহনের অভাবে কাঁধে ও মাথায় করে সবজি, ধান, পাট নিয়ে ত্রিমোহিনী ও কেশবপুর বাজারে যেতে বাধ্য হন তারা। তাছাড়া বর্ষা মৌসুমে এলাকার স্কুল, কলেজ গুলোতে আসতে হয় ১/২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে পার হয়ে। তারা আরো জানান, কপোতাক্ষের উপর একটি সেতু নির্মাণ হলে কেশবপুরের সকল প্রতিষ্ঠানসহ বাজারটিরও উন্নতি হতো। দেয়াড়া গ্রামের শিক্ষক মিজানুর রহমান জানান, কপোতাক্ষের উপর সেতুটি র্নিমাণ হলে কেশবপুর, কলারোয়া এলাকার বিভিন্ন পেশার মানুষের জীবন মানের উন্নতি হতো। তিনি আরো জানান, নিজেদের স্বার্থে তারা প্রতিবছর এলাকাবাসীর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ওই বাঁশের সাঁকোটি সংস্কার করে থাকেন।

কপোতাক্ষ নদের উপর একটি সেতু নির্মিত হলে কেশবপুর, কলারোয়া উপজেলার মানুষের জীবনযাত্রা পাল্টে যাবে। এলাকাবাসি ওই সেতুটি নির্মাণের জন্য স্থানীয় এম.পি সহ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।