1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
আত্রাই পল্লী সমাজের আলোচনা সভা ও মানববন্ধন শ্রীবরদীতে ৭ই মার্চ ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা  শেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ফেরদৌস জাহানারার নামে ছাত্রী হোস্টেলের নামফলক উন্মোচন। ঝিনাইগাতীর ধানশাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হায়দার আলীর মতবিনিময় সভা  কেশবপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত জামালপুরের সেই বিতর্কিত ডিসি শাস্তি পেলেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেলেন নালিতাবাড়ী উপজেলার বাদশা ও গোপাল নলকুড়া ইউনিয়নে ভিজিডি কার্ডের চাল বিতরন ঝিনাইগাতীর ধানশাইল ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হতে চান এনামুল পুলিশ লাইন্স একাডেমি‌তে প্রধান শিক্ষক হি‌সে‌বে কালা‌মের যোগদান

কেশবপুরে আবারও ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান

মীর আজিজ হাসান(কেশবপুর)যশোর।
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০
  • ৮২ Time View

যশোর কেশবপুরে ২৬ আগস্ট ২০২০ইং বুধবার সকাল থেকে ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযান পরিচালনা করেন যশোর জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আবু শাহীন, ডা: মীর আবু মাউদ, কেশবপুর হাসপাতালের টি,এইস,এ ডা: মোঃ আলমগীর, ডা: জহিরুল হক অসীম সহ আরো অনেকে।

গত ২২ আগস্ট ২০২০ইং শনিবার যশোর জেলা সিভিল সার্জন এর প্রতিনিধি হিসেবে ডা: মীর আবু মাউদ কেশবপুরে অবস্থিত ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান পরিচালনা কালে ডা: মীর আবু মাউদ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালকদের বিভিন্ন বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিয়েছিলেন।

২৬ আগস্ট ২০২০ ইং বুধবার যশোর জেলা সিভিল সার্জন ডা: আবু শাহীন নিজে কেশবপুরের সকল ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শন করেন। মর্ডান ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার এবং কপোতাক্ষ ক্লিনিক এ অনুমোদন বিহীন অতিরিক্ত বেড অপসারণ করেন, তিনি ক্লিনিকের কাগজ পত্র দেখেন ও বিভিন্ন ধরনের দিক নির্দেশনা প্রদান করেন। কেশবপুরের অন্যান্য ক্লিনিক গুলোও তিনি পরিদর্শন করেন। একই দিনে কেশবপুরের সকল ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিদর্শন করেন সিভিল সার্জন ডাঃ আবু শাহীন। মনোয়ারা ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হোসেন প্যাথলজী এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের প্যাথলজী রুম বড় করতে বলেছেন এবং অন্যান্য বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন। এছাড়া পাঁচটি প্যাথলজীকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্যাথলজীক্যাল কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

অভিযান শেষে সিভিল সার্জন ডা: আবু শাহীন সাংবাদিকদের সাথে আলাপ করেন। আলাপ কালে তিনি বলেন, এ রকম অভিযান যশোর জেলার সব গুলো উপজেলায় হচ্ছে এবং আগামীতে এ অভিমান চলমান থাকবে। তিনি যে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন তা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা তা দেখার দায়িত্ব দিয়ে যান কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্ব প্রাপ্ত টি,এইচ,এ ডা: মোঃ আলমগীর এর উপর।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।