1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

কেশবপুরের মঙ্গলকোট গ্রামের কাঁচা রাস্তায় চলাচলে দুর্ভোগ 

মীর আজিজ হাসান (যশোর) কেশবপুর প্রতিনিধি।
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩৫ Time View

যশোরের কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট বাজার হতে গোলাঘাটা ব্রিজ ভায়া মঙ্গলকোট আকুঞ্জি পাড়া জামে মসজিদ পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তাটি আজও পাকাকরণ হয়নি। ফলে জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। ওই রাস্তাটি দ্রুত পাকাকরণের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত লোক কাঁদা ভেঙে যাতায়াত করে থাকে। একটু বর্ষা হলে কর্দমাক্ত হয়ে যায়। ফলে কোন ভ্যান, সাইকেল, মোটর সাইকেলতো দূরের কথা মানুষ পর্যন্ত চলাচল করতে পারে না। জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি দিয়ে মঙ্গলকোট, বিদ্যানন্দকাটি, মজিদপুর, সফরাবাদ, আলতাপোলসহ বিভিন্ন গ্রামের লোকজন যাতায়াত করে থাকেন।

মঙ্গলকোট গ্রামের মানুষের প্রাণের দাবি, এ রাস্তাটি পাকাকরণ করা হলে একদিকে যেমন বিভিন্ন গ্রামের ছাত্র-ছাত্রী ও লোকজনের যাতায়াতে ভোগান্তি কমবে, অন্যদিকে মুমূর্ষু রোগী বহন করতে বেগ পেতে হবে না।

সংশ্লিষ্ট ইউপি মেম্বার জহির রায়হান জানান, মঙ্গলকোট ইউনিয়নে একই গ্রামের মধ্যে মঙ্গলকোট বাজার ভায়া গোলাঘাটা ব্রিজ ৭.৬৩ কিঃমিঃ রাস্তাটি সবচেয়ে দীর্ঘতম। তার মধ্যে ২.৫ কিঃমিঃ কার্পেটিং, ১কিঃমিঃ ইটের হেয়ারিং, ০.৫ কিঃমিঃ ইটের সোলিং এবং বাকি প্রায় ৪ কিঃমিঃ কাঁচা রয়েছে। যুগ যুগ ধরে এলাকার জনগণ রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য দাবি জানিয়ে আসছেন।

এবার যিনি এমপি হয়েছেন তিনি তাদের প্রাণের দাবিটা পূরণ করবেন বলে তারা বিশ্বাস করেন।

সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রাক্তন ইউপি মেম্বার হাবিবুর রহমান গাজী জানান, রাস্তাটি অত্যান্ত জনগুরুত্বপূর্ণ। জনদুর্ভোগ লাঘব করতে রাস্তাটি পাকাকরণের প্রয়োজন।

সংশ্লিষ্ট এলাকার সমাজ সেবক মাস্টার আবদুল লতিফ সরদার জানান, কাদার ভয়ে মঙ্গলকোট বাজারে যেতে পারি না। রাস্তাটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ। তিনি পাকাকরণের দাবি করেন।

ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নিজাম উদ্দীন গোলদার জানান, আওয়ামী লীগ সরকারের অঙ্গীকার বাস্তবায়নের জন্য জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসা উচিৎ বলে তিনি মনে করেন। রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট দাবি রেখেছেন।

মঙ্গলকোট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বজলুর রহমান সরদার জানান, অবহেলিত জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি পাকা করা অত্যন্ত প্রয়োজন। রাস্তাটি সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদারের মাধ্যমে পাকা হবে বলে আশা করি।

মঙ্গলকোট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুন্সি মনোয়ার হোসেন জানান, ওই রাস্তাটি বড় প্রজেক্ট ছিল। সে কারণে প্রয়াত এমপি ইসমাত আরা সাদেকের নিকট প্রকল্প দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখনও পর্যন্ত প্রকল্পটি অনুমোদন হয়নি।

এ ব্যাপারে সোমবার উপজেলা প্রকৌশলী মুনছুর আলী জানান, ওই রাস্তার বিষয় আমার কিছু জানা নেই।।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।