1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৫৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কেশবপুর পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম আবারো মেয়র পদে আওয়ামী লীগের চুড়ান্ত প্রার্থী পৌরসভা নির্বাচনে নালিতাবাড়ীতে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী বাছাই শ্রীবরদী পৌরসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভোটে আ’লীগের প্রার্থী বাছাই: বিজয়ী সফিক শেরপুর পৌর নির্বাচন : আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে তৃণমূলের ভোটে শেরপুরে আনিস বিজয়ী কেন্দ্রীয় নির্দেশনা উপেক্ষা প্রতিবাদে আ’লীগের এক মনোনয়নপ্রত্যাশীর সংবাদ সম্মেলন তুরস্কে হ‌বে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য,বাংলা‌দে‌শে হ‌বে আতাতুর্কের ভাস্কর্য অঝোরে কাঁদলেন অপু বিশ্বাস! দ্বিতীয় ধাপে ৬১ পৌরসভার ভোট ১৬ জানুয়ারি শেরপুরে মায়ের বিরুদ্ধে শিশুকে হত্যার অভিযোগ কেশবপুরে ৫শত বছর বয়সী বনবিবি তেঁতুল গাছটি সংরক্ষণের দাবি

ময়মনসিংহে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিচার দাবিতে স্মারকলিপি

নূরূজ্জামান সেলিম
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১০১ Time View
ময়মনসিংহে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিচার দাবিতে সিভিল সার্জন বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে ময়মনসিংহ টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি। বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টায় সংগঠনের সভাপতি একাত্তর টিভির ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান বাবুল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক বৈশাখী টিভির ময়মনসিংহ প্রতিনিধি আ.ন.ম ফারুকের নেতৃত্বে সিভিল সার্জন ডা. এ বি এম মসিউল আলমের কাছে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবী করে স্মারকলিপি দেয়া হয়৷
স্মারকলিপির মাধ্যমে বলা হয়, ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোহেলী শারমিনের নানা অনিয়ম দুর্নীতির খবর অনুসন্ধানকালে এসএ টিভির ময়মনসিংহ প্রতিনিধি আওলাদ রুবেল অশোভন আচরণের শিকার ও নাজেহাল হন। পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনকালে ডা. সোহেলী শারমিন বাধা দেন এবং ক্যামেরা নিয়ে টানা হেচরা করেন। এসময় আওলাদ রুবেলকে নাজেহালসহ হুমকি ধামকি দেয়া হয়।
সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেন, কোনো গণতান্ত্রিক দেশে প্রজাতন্ত্রের একজন সরকারি কর্মচারীর এইরকম আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। দায়িত্বশীল পদে থেকে একজন পেশাদার সাংবাদিকের সাথে এই ধরনের আচরণ গনতন্ত্র ও স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য হুমকি স্বরূপ। স্বাস্থ্য কর্মকর্তার এ ধরনের দ্বায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তারা। একইসাথে সুষ্ঠু তদন্ত করে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবী জানানো হয়।
উল্লেখ্য, গত রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সংবাদ সংগ্রহে গেলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সোহেলী শারমিন প্রথমে তার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। পরে এসএ টিভির ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে ভেঙে ফেলার চেষ্টা করেন। এরপর থেকে সাংবাদিক মহলে ক্ষোভ দেখা হয়। শুরু হয় নানা কর্মসূচি, মানববন্ধনসহ স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে উঠে নিন্দার ঝড়। তবুও এখনো বহাল তবিয়তে আছেন ওই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।