1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৩০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
নালিতাবাড়ীর গোপাল সরকার সাংগঠনিক সম্পাদক হওয়ায় বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের শুভেচ্ছা নালিতাবাড়ীতে বৃদ্ধাকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়ার ভিডিও ভাইরাল, কারাগারে পুত্রবধূ ও নাতি। নালিতাবাড়ীতে ওয়ার্কার্স পার্টির কমরেড অমল সেন স্বরণে শীতবস্ত্র বিতরণ নালিতাবাড়ীতে বিটিসিএল অফিস বেহাল,টেলিফোন সংযোগ বিহীন । শেরপুরে ওয়ার্কার্স পার্টির শীতবস্ত্র বিতরণ ঝিনাইগাতীতে বিনাচিকিৎসায় ৮বছর ধরে শিকলে বন্দি ভারসাম্যহীন আখি পাবলিক বাসে চড়ে ঢাকায় ফিরলেন মতিয়া চৌধুরী “ছোট দেশ হলেও বড় বড় দেশ যা করে আমরা তাদের চেয়ে পিছিয়ে নেই”মতিয়া চৌধুরী নালিতাবাড়ীতে সংরক্ষণের অভাবে গণকবর নদীতে বিলীন হওয়ার পথে ! নালিতাবাড়ীতে কমিউনিস্ট পার্টির সম্মেলন অনুষ্ঠিত

১২দিনেও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আটককৃত ৬২ বস্তা চালের রহস্য উদঘাটন হয়নি

‌খোর‌শেদ অালম
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৫৩ Time View

শেরপুরের শ্রীবরদীতে ১২ দিনেও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি দরের আটককৃত ৬২ বস্তা চালের রহস্য উদঘাটন হয়নি। এ নিয়ে সচেতন মহলের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। স্হানীয় বাসিন্দারা জানান,গত ২৮ অক্টোবর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সোহানা বিলকিজের নেতৃত্বে থানা পুলিশ তাতি হাটি ইউনিয়নের শালমারা বাজারের ব্যাবসায়ী খোরশেদ আলমের ভাড়া করা ঘর থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৬২ বস্তা চাল আটক করে। পরে আটককৃত চাল খোরশেদ আলমের ভাড়া করা ঘর মালিক ইউপি সদস্য লৎফর রহমানের জিম্মায় রাখা হয়। লৎফর রহমান বলেন চালগুলো তার জিম্মায় আছে।

বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে, আটককৃত ৬২ বস্তা চালের মধ্যে ৫০ বস্তা ৩০ কেজি ওজনের। তাতে খাদ্য অধিদপ্তরের সিল রয়েছে। ১২ বস্তা ৫০ কেজি ওজনের।

স্হানীয় বাসিন্দারা জানান,খোরশেদ আলমের ছোট ভাই যুবলীগ নেতা শহিদুল ইসলাম তাতিহাটি ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার। তার আরেক বড় ভাই আবু জাফর উপজেলা শ্রমিক লীগের আহবায়ক ও জেলা পরিষদ সদস্য। অনেকেরই ধারনা এ কারনেই গত ১২ দিনেও আটককৃত চালের রহস্য উদঘাটন হয়নি। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সোহানা বিলকিছ বলেন আটককৃত চালের রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত করে দেখছে। শ্রীবরদী থানার এসআই রোকন উদ্দিন বলেন , খাদ্য বিভাগের সহায়তার জন্য আমরা ঘটনাস্থলে যাই। আটককৃত চালের জব্দ তালিকা তৈরি করি। চালগুলো খাদ্য বিভাগের কি না তা যাচাই বাচাই করে ব্যবস্তা নেবেন খাদ্য বিভাগ। কিন্ত এ ব্যাপারে খাদ্য অধিদপ্তরের কোন তৎপরতা নেই বললেই চলে।

খোরশেদ আলমের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিলুফা আক্তার বলেন চাল আটকের বিষয়টি আমি জেনেছি। পুলিশ বিস্তারিত তদন্ত করে দেখছে। তারাই বলতে পারবে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।