1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ঝিনাইগাতীতে ব্র্যাকের আইন সহায়তা মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইগাতীতে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর মতবিনিময় সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিএনপিই এখন স্বীকার করেছে যে অসম্ভবকে সম্ভব করেছে শেখ হাসিনা, মতিয়া চৌধুরী কেশবপুর পৌর নির্বাচনের পরিবেশ অত্যন্ত ভালো, কোন ঝুঁকি নেই- সিইসি নূরুল হুদা কেশবপুরে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন, দুই দিনে ৫ প্রার্থীসহ ১ কর্মীকে জরিমানা কেশবপুরে স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূ আহত কলামিস্ট, গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ আর নেই নাসিরের জীবনে আরও অনেক তামিমা ছিল : সুবাহ (ভিডিও) নালিতাবাড়ী মধুটিলা ইকোপার্কে ঘুরতে গিয়ে ১ ব্যাক্তির মৃত্যু স্বামীর ডিভোর্স নোটিশ নিয়ে যা বললেন নুসরাত

পুলিশ কর্মকর্তা বাবার সমীপে মেয়ের আবেগ ঘন চিঠি, বাবার চোঁখে অশ্রু।

মাসুদ হাসান বাদল
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৪৮৩ Time View
বাবা পুলিশ কর্মকর্তা মামুনের সাথে মেয়ে রোদেলা

রোদশী এবার ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। বাবা মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। ১৪ ফেব্রুয়ারী ছিলো‘বিশ্ব ভালোবাসা’দিবস। আবার ভালোবাসা দিবসের দিন ছিল শেরপুর পৌরসভার নির্বাচন। পুলিশের চাকুরি, ব্যস্ততার জন্য বাবার সাথে কম দেখা হয় রোদশীর। দায়িত্ব পালন করতে অন্ধকার থাকতেই ওই পুলিশ কর্মকর্তা বাসা থেকে বের হয়ে যান একদল পুলিশ নিয়ে। এ সময় রোদশী ও তার অন্য ভাই বোনরা ঘুমিয়ে ছিলেন। তাই প্রতি ভালবাসা দিবসের ন্যায় বাবার কপালে চুমু দিতে পারেনি আদরের রোদশী। দিনভর অপেক্ষার প্রহর গুনেছে বাবার জন্য। কিন্তু দুপুর বিকাল সন্ধ্যা আর সন্ধ্যা গড়িয়ে মধ্যরাত পেরিয়ে যায়। বাবা বাসায় ফিরেনি। বাবার সাথে একদন্ড কথা বলতে বারবার মোবাইল করেছে । একবার কয়েক সেকেন্ড কথাও হয়েছে। বাবাকে বাসায় আসতে তাগিদ দিয়েছে। মুহুর্তে মুহুর্তে নির্বাচনী উত্তেজনার কারনে শত চেষ্টা করেও বাবা বাসায় ফিরতে পারেনি। বাসায় ফিরতে ক”বার মনেও করেছিলেন কিন্তু কর্তব্যের কাছে হার মেনেছে আবেগ। বাবার জন্য অপেক্ষা করে অবশেষে মধ্য রাতে রোদশী ঘুমের দেশে চলে যায়। ঘুমের আগে ভালোবাসা দিবসের ভালোবাসা জানাতে বাবাকে নিজের হাতে একটি চিঠি লিখে রোদেলা। রাত পার হলেই ভালবাসা দিবস শেষ তাই বাবা যখনই বাসায় আসবে তখন হয়ত ভালবাসা দিবসের কিছুটা সময় বাকী থাকবে। আর অন্তত চিঠিতে বাবা আদরের সন্তানের ভালোবাসার কথা জানাতে পারবে।
দায়িত্ব পালন শেষে ওসি মামুন বাসায় ফিরে ভোর সাড়ে ৫ টায়। ঘরে ঢুকেই চোখে পড়ে টেবিলের উপর কাঁচা হাতের লেখা একটি চিঠির খাম। খামের উপর লেখা ছিলো, ‘বাবা চিঠিটা পড়ো প্লিজ- রোদশী’ লেখাটি দেখে বোঝার বাকী রইলো না এটা প্রিয় রোদশীর হাতের লেখা চিঠি। চিঠিটি পড়ে ওসি মামুন ক্ষনিকের জন্য আবেগ আপ্লুত হয়ে ঘুমের মধ্যেই মেয়েকে জড়িয়ে ধরে আদর করে,দায়িত্বের কারনে সন্তানের ভালবাসায় সাড়া দিতে না পারার ব্যর্থতায় চোখের কোণে জমা হয় অশ্রু। সকালের দিকে ওসি মামুন তার ফেইস বুকের ওয়ালে চিঠিটি পোষ্ট করলে ঘন্টা খানিকের পোষ্টটি ভাইরাল হয়ে যায়। হাজারও নেটিজেন মেয়েকে আশির্বাদ করে।
চিঠিতে লিখা ছিলো, বাবা আজকে নির্বাচনে তুমি ছিলে অনেক টাইয়ার্ড। তুমি তাও যে চিঠিটা দেখছ এটার জন্য আমি খুব খুশি হলাম। তোমার মতো বাবা পেয়ে আমি নিজেকে গর্ব করি, আমি জানি তুমি আমাকে অনেক অনেক ভালোবাসো। কিন্তু আমি তোমাকে তার চেয়ে ১০০ গুন বেশী ভালোবাসি। আমি জানি আমরা তিন জন (তিন ভাইবোন)তোমাদের দুইজনের কলিজার টুকরা। তোমরা দু’জন (মা-বাবা)আমার‘বেস্ট ফ্রেন্ড’। আমি তোমার আর আম্মুর আশা পূরণ করবো। ‘আইলাভ ইউ’ বাবা। ইতি তোমার আদরের ‘রোদ’।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।