1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ঝিনাইগাতীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপিতে প্রার্থী সংকট, আওয়ামী লীগে ছড়াছড়ি সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে ওয়ার্কার্স পার্টির মানববন্ধন ঝিনাইগাতীতে আর্থিক সংকটে মেয়ের চোখের চিকিৎসা করাতে পারছেন না দরিদ্র পিতা না‌লিতাবাড়ী‌তে কমরেড আবুল বাশার ব্রিগেডের উদ্যোগে পুজা মন্ডপে স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ ঝিনাইগাতীতে সংসদ সদস্য ফজলুল হকের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন নালিতাবাড়ীতে গাছ কেটে র‌শি দি‌য়ে টান দিলে মাথায় পড়ে শ্রমিক নিহত জননেত্রী শেখ হাসিনার দেশ পরিচালনায় সুশাসনের ফল সকল ধর্মের মানুষ পাচ্ছে। মতিয়া চৌধুরী শ্রীবরদীতে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা “যতক্ষণ শেখ হাসিনার হাতে দেশ, পথ হারাবে না বাংলাদেশ”ম‌তিয়া চৌধুরী নালিতাবাড়ীতে মা মেয়েকে সাতজনে মিলে গণধর্ষণ: গ্রেফতার ২

ঝিনাইগাতী থেকে ঢাকাগামী বাসচলাচল বন্ধ, সংবাদ স‌ম্মেলন।

ঝিনাইগা‌তী(‌শেরপুর)প্র‌তি‌নি‌ধি
  • Update Time : বুধবার, ১০ মার্চ, ২০২১
  • ১৩৪ Time View

শেরপুরের ঝিনাইগাতী থেকে ঢাকাগামী দূরপাল্লার যাত্রীবাহি বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে যাত্রীদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। গত ৫ মার্চ থেকে মালিক সমিতির দু’পক্ষের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাসচলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে ঝিনাইগাতী উপজেলার বাস মালিক ও শেরপুর জেলা বাস কোচ মালিক সমিতির বিরোধ এবং পরস্পরের বিরুদ্ধে অবৈধ হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিরসনে ৯ মার্চ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় শেরপুর জেলা শহরের বাগরাকসা নতুন বাসটার্মিনালস্থ শেরপুর জেলা বাস কোচ মালিক সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়‌। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা বাস কোচ মালিক সমিতির সভাপতি ও শেরপুর সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ ছানুয়ার হোসেন ছানু। এসময় তিনি সাংবাদিকদের জানান যে শেরপুরে সড়ক পরিবহন সেক্টরে কোথাও কোন চাঁদাবাজি নেই। তিনি সৃষ্ট জটিলতা এবং যাত্রি হয়রানি নিরসনের জন্য ঝিনাইগাতী উপজেলার বাসিন্দা আলহাজ্ব সামিউল হক ফকিরকে দায়ী করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে জানান যে ‘ শাহ্ ফকির এক্সপ্রেস ‘ নামে একটি বাস রুট পারমিট বিহীনভাবে ঝিনাইগাতী থেকে ঢাকার আশুলিয়ায় অবৈধভাবে চলাচল করে আসছে। তা সামিউল হক ফকিরের মালিকানাধীন।

নিয়মনীতি না মেনে অরাজকতা ও নৈরাজ্য বন্ধ করতে তাকে শেরপুর জেলা বাস কোচ মালিক সমিতির পক্ষ থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। কিন্তু তিনি সংগঠনের নিয়মনীতি লঙ্ঘন করে তার বাস সার্ভিস আশুলিয়ায় চলাচল অব্যাহতন রাখেন।পরে সংগঠনের পক্ষ থেকে শেরপুর নবীনগর বাস টার্মিনাল এলাকায় মালিক সমিতির পক্ষ থেকে শাহ্ ফকির এক্সপ্রেস গাড়িটিকে ৭ দিনের জন্য চালানো নিষেধ করা হয়। এতে সংক্ষুব্ধ হয়ে আলহাজ্ব সামিউল হক ফকির ও ঝিনাইগাতীর অপর একটি গাড়ির মালিক সামিউল ইসলাম সাদা মিয়া অবৈধ হস্তক্ষেপের মাধ্যমে জোরপূর্বক ৫ মার্চ থেকে ঝিনাইগাতী থেকে ঢাকাগামী বেশ কয়েকটি বাস চলাচল বন্ধ করে দেন। তারা ব্যক্তিগত স্বার্থে যাত্রী হয়রানি এবং প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছেন। এব্যাপারে জেলা বাস কোচ মালিক সমিতির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসন,পুলিশ সুপার,ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর পত্র প্রেরন করা হয়েছে। এবং সামিউল ফকির ও সাদা মিয়ার অনৈতিক কর্মকান্ড ও অরাজকতা বন্ধে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রকৃত বিষয়টি জনসমক্ষে তুলে ধরা হয়।
এতে ঝিনাইগাতী উপজেলার বিভিন্ন স্থানের যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে শেরপুর জেলা বাস কোচ মালিক সমিতির কার্যকরি পরিষদের এক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৯ মার্চ মঙ্গলবার সকাল থেকে ঝিনাইগাতী উপজেলার আহাম্মদ নগর অস্থায়ী বাস টার্মিনাল থেকে ঢাকাগামী বাস চলাচল শুরু করার কথা জানানো হয়। তিনি সকলকে নিয়ম শৃঙ্খলা মেনে আহম্মদ নগর থেকে চলাচল করার আহ্বান জানান এবং আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে,এতে ঝিনাইগাতী বাজারের যানজট নিরসন হবে।
এসময় জেলার বাস কোচ মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক স‚দীপ ঘোষ,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রঞ্জিত সিংহ, মমিনুল হক, কার্যকরি সদস্য ওয়াহিদুল আনোয়ার দিপু, শেরপুর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. আ: হান্নান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমসহ বাস কোচ মালিক সমিতির সদস্য ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দগণ উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে ঝিনাইগাতী উপজেলার মালিক এবং শ্রমিক ঐক্য নামে মাইকিং করে প্রচার করা হচ্ছে যে ঝিনাইগাতী থেকে চলাচলকারী সকল গাড়ি পূর্বের সময়সূচী অনুযায়ী আগের কাউন্টার থেকে ঢাকায় চলাচল করবে। ইতিমধ্যে সকল কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি শুরু করতে দেখা গেছে। এতে নতুন করে আবারো জটিলতা সৃষ্টির আসংকা দেখা দিয়েছে।
এবিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ঝিনাইগাতী বণিক সমিতির সভাপতি মুখলেছুর রহমান খান ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ বলেন, শেরপুর জেলা মালিক সমিতির সাথে আমাদের কোন বিরোধ নেই। কিন্তু তাদের নেয়া সিদ্ধান্ত এক তরফা এবং এতে ঝিনাইগাতীর যাত্রীদের হয়রানি বৃদ্ধি পাবে। ঝিনাইগাতী থেকে ৩ কিঃমিঃ দূরে আহাম্মদনগর থেকে গাড়ি চলাচলের কোন যৌক্তিক কারন নেই। রোড পারমিটের বিষয়ে ছামিউল হক সাদা মিয়া বলেন সকল গাড়ির রোড পারমিট রয়েছে। ঢাকা মহাখালী পর্যন্ত। কিন্তু একাধিক গাড়ি আশুলিয়ায় চলাচল করলেও শুধু শাহ ফকির এর গাড়ি বন্ধ করে দেওয়া অন্যায় এবং এর প্রতিবাদে সকলে নিজ উদ্যোগে সাময়িকভাবে গাড়ি চলাচল বন্ধ রেখেছেন । আমরা বিষয়টির একটি ন্যায়সঙ্গত সমাধানে শেরপুর জেলা, ময়মনসিংহ বিভাগ এবং কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে লিখিত আবেদন করেছি। কিন্তু ঝিনাইগাতী থেকে ৩ কিঃমিঃ দূরে আহাম্মদনগর থেকে গাড়ি চলাচলে যাত্রীদের হয়রানি ও ভোগান্তি পোহাতে হবে বলে আমরা এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করছি।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।