1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
বাংলাদেশ আওয়ামী মটর চালক লীগের মাস্ক,সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ শেরপুরের বিশিষ্ঠ শিল্পপতি আলহাজ ইদ্রিস মিয়ার জানাজায় মানুষের ঢল। শেরপুরে আলু সরকারি মূল্য কমিয়ে দেওয়ায় চাষিদের ক্ষোভ। শ্রীবরদীতে আরিয়ান সুপার সপ উদ্বোধন নালিতাবাড়ীতে ক্ষতবিক্ষত ভোগাই ও চেল্লাখালী নদী ইজারা বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন শেরপুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চন্দন করোনায় আক্রান্ত মহা ধুমধাম করে এক সাথে দুই প্রেমিকাকে বিয়ে যুবকের! কেশবপুরের ইফ্ফাত আফরিন মিম মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় ৩২তম শেরপুরের জেলা জজসহ পরিবারের সবাই করোনায় আক্রান্ত। কেশবপুরের কৃতি সন্তান করোনাযোদ্ধা ডাক্তার হাসনাত আনোয়ার কোভিড-১৯ আক্রান্ত

অপরিকল্পিত বালু উত্তোলনে ধ্বংসের পথে ভোগাইনদী

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৯ মার্চ, ২০২১
  • ৯১ Time View

নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি
অপরিকল্পিতভাবে শ্যালুচালিত ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলনের ফলে ধ্বংস হতে চলেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার প্রাণ ভোগাই নদী। নদীতে এখন বালু না থাকায় নদীর তীরভেঙে রাতের আধারে চলছে বালু উত্তোলণ। এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকলে ভবিষ্যতে নদী ঘিরে স্থাপনাসমূহ ধ্বংসের পাশাপাশি প্রকৃতি ও বৈচিত্র হারাবে ভোগাই।
ভোগাই নদী ভারতের মেঘালয় রাজ্যের“উইলিয়াম পিক” পাহাড় থেকে নেমে আসা ১৮৪ টি ঝর্ণা দ্বারা প্রবাহিত ভোগাই নদী নালিতাবাড়ী উপজেলার গারো পাহাড়ের বুক চিরে রামচন্দ্রকুড়া ইউনিয়নের পানিহাটা পর্যটন এলাকাদিয়ে প্রবেশ করেছে। নাকুগাঁও স্থল বন্দরের পাশ দিয়ে উপজেলার পৌরশহরের উপর দিয়ে মরিচপুরান ইউনিয়নে দুভাগ হয়ে গেছে। ভোগাই নদীর দুপাড়েরর মানুষদের যাতায়াতের জন্য পাঁচটি ব্রীজ তৈরি করা হয়েছে। আর বোর মৌসুমে সেচের জন্য দুটি রাবারড্যাম স্থাপন করা হয়েছে। এই দুৃটি রাবারড্যামের মাধ্যমে নালিতাবাড়ী ও নকলা,হালুয়াঘাট ও ফুৃলপুর উপজেলার কৃষকগণ সেচ সুবিধা নিয়ে বোর আবাদ করে আসছেন।

জানাগেছে,চলতি ১৪২৭ বাংলা সনে এক বছরের জন্য জেলা প্রশাসন থেকে এক কোটি ৩৯ লাখ টাকায় ভোগাই নদীর মন্ডলিয়াপাড়া, কেরেঙ্গাপাড়া, ফুলপুর ও আন্দারুপাড়া এ চারটি মৌজায় ১২.৩২ একর নদীর চর বালু মহাল ইজারা পায় ইলিয়াস এন্টারপ্রাইজ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। এরপর সরকারী নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে ইজারার শর্ত ভঙ্গ করে যত্রতত্র বোরিং, নিষিদ্ধ এলাকায় ড্রেজিং এমনকি নদী তীরবর্তী সমতলের পরিত্যক্ত ভিটেমাটি, আবাদী ও অনাবাদী জমি খুঁড়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।
সরেজমিনে ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানাগেছে,হাতিপাগার ভাঙা এলাকায় নদীতে ১৫ টি মেশিন রয়েছে। এগুলো নদীর ওই পাড় থেকে পাড় ভেঙে বালু আনছেন। তার ভাটিতে ডাকতার গোপ এলাকায় ৮টি মেশিন দিয়ে নদীর ওই পাড় থেকে পাড় ভেঙে মানুষের ভিটে থেকে বালু আনা হচ্ছে। এরপর মন্ডলিয়া পাড়া এলাকায় ৬ টি মেশিন রয়েছে। সব গুলো মেশিন দিয়ে নদীর ওপারের পাড় ভেঙে বালু টানা হচ্ছে। এরপর নয়াবিল বাজার সংলগ্ন এলাকায় একই অবস্থা। প্রশাসনের নজর এড়াতে রাত ৯ টার পর চালু হয় সারারাত চলে এসব মেশিন। মেশিনের বিকট শব্দে এলাকাবাসীর রাতে ঘুম হারাম হয়ে পড়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও)হেলেনা পারভীন বলেন,বিষয়টি জেনেছি। রাতের বেলা বালু উত্তোলণ বে-আইনি। এ বিষয়ে অবশ্যই আমরা ত্রæত পদক্ষেপ নেব।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।