1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৭:৫৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ঝিনাইগাতীতে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের জেরে ইউপি সদস্যের হাতে চেয়ারম্যান প্রহৃত ঝিনাইগাতীতে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুমানের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল কেশবপুরে ১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬ জন করোনা পজিটিভ নালিতাবাড়ীতে মাদকসেবী,মাদক ব্যবসায়ী ও কিশোরগ্যাং সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আবেদন। সাংবাদিক এমএ হাকাম হীরার মায়ের ইন্তেকাল “বছরে এক লক্ষ ব্যাগ রক্তের যোগান দেবে জাগ্রত ব্লাড ডোনার’স ক্লাব” ”কত মাইনষ্যে ঘর পাইলো, আমি কিছুই পাইলাম না” কেশবপুরে রোগযন্ত্রনা সইতে না পেরে বৃদ্ধার আত্মহত্যা কেশবপুরে পুকুর থেকে কাঠ ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার সোহাগপুর বিধবা পাড়ায় শহিদ স্মৃতি সৌধের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

  শেরপুরের জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র এবং সাংবাদিক নেতা করোনায় আক্রান্ত

শেরপুর প্রতিনিধি
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১
  • ৩৯ Time View

শেরপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পৌরসভার বর্তমান মেয়র এবং এক সাংবাদিক নেতা করোনায় আক্রান্ত। গতকাল বুধবার বর্তমান মেয়র ও আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া লিটন করোনায় আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। তিন চার দিন আগে আক্রান্ত হয়েছেন পৌরসভার সাবেক মেয়র,বর্তমান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবীর রুমান। আজ দুপুরের দিকে শেরপুর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক ও স্থানীয় নবগঠিত ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মনিক দত্তের শরীরে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। মেয়র লিটন ঢাকার উত্তরার বাসায় আইসোলেশনে আছেন। জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি আছেন। মানিক দত্ত শহরের চকবাজার বাসায় আইসোলেশনে আছেন। মেয়র লিটনের জ্বর,মাথা ব্যাথা থাকলেও বড় কোন সমস্যা নেই। জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুমান আগের চেয়ে কিছুটা ভাল আছেন। তবে পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। মানিক দত্ত অনেকটা সুস্থ থাকলেও জ¦র আছে ও খাওয়ার রুচি নেই। সূত্র পারিবারিক। পরিবারের পক্ষ থেকে সবার জন্য দোয়া চাওয়া হয়েছে।
এদিকে শেরপুরের করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছে বলে জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে। গেল ৪৮ ঘন্টায় ২০ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে গত মে মাসে মোট সনাক্ত ছিল ৬৮জন। আর জুন মাসের (১০ তারিখ পর্যন্ত )১০ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৭জন। জেলায় মোট আক্রান্ত ৮৩৭ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ১৮ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলাতেই আছেন ৪৪৮,নকলায় ১৪৭,নালিতাবাড়ীতে ১১৭,শ্রীবরর্দিতে ৬৩, ঝিনাইগাতিতে ৫৬ জন।
সিভিল সার্জন একেএম আনওয়ারুর রউফ জানিয়েছেন অবস্থা খারাপের দিকে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে শেরপুর জেলা রেড জুনে পড়বে। তিনি সকলকে আরও সতর্ক হয়ে স্বাস্থ্য বিধি মানকে অনুরোধ করেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।