1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

না‌লিতাবাড়ী‌তে সার্জেন্ট আহাদ স্মরণে স্মৃ‌তি ফলক উ‌ন্মোচন

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ৩৩ Time View

নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি

শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরশহরে মাঝখান দিয়ে বইয়ে গেছে দুরন্ত পাহাড়ি নদ ভোগাই। এই ভোগাই নদে শৈশব কেটেছে শহরের আমবাগান এলাকার সন্তান বাংলাদেশ পুলিশের উজ্জল মুখ সার্জেন্ট আহাদ পারভেজের। ​সেই নদের পাড়ে পৌরসভার উদ্যোগে গড়ে তোলা হয়েছে সার্জেন্ট আহাদ স্মৃতি প্রাঙণ।

বৃহস্পতিবার(২৮ অ‌ক্টোবর)সা‌র্জেন্ট আহাদ পারভেজের ২২ তম মৃত্যু বাষিকী। এই দিনটিকে কেন্দ্র করে প্রাঙণে ‘সার্জেন্ট আহাদ: বীরত্ব গাথা’ স্মৃতি ফলক উদ্বোধন করা হয়। আজ বিকেলে ফলক উন্মোচন করেন শেরপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) মো.নাহিদ হাসান চৌধুরী।

সার্জেন্ট আহাদ ১৯৯৯ সালের ২৮ অক্টোবর ঢাকার মতিঝিল এলাকায় ছিনতাইকারীদের শেকড় উৎপাটনে এক দু:সাহসিক অভিযানে নেমে ছিনতাইকারীদের আঘাতে আহত হয়ে সিএসএইচ এ মৃত্যু বরণ করেন।

নালিতাবাড়ী পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, সৎ, দক্ষ, নির্ভিক পুলিশ সার্জেন্ট আহাদকে স্মরণীয় করে রাখতে স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর নির্দেশনায় ও পৌরসভার মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিকের প্রচেষ্ঠায় ভোগাই নদের পাড়ে দুই একর জমি নিয়ে গড়ে তোলা হয় সার্জেন্ট আহাদ স্মৃতি প্রাঙণ। সেই প্রাঙণে আহাদের ছবি ও জীবনী নিয়ে স্মৃতি ফলক স্থাপন করা হয়েছে। তাঁর ২২ তম মৃত্যু বাষির্কীতে ফলক উন্মোচন,স্মৃতিচারণ, কোরানখানি ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিকের সভাপতিত্বে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মুঠোফোনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্ডলির সদস্য ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মতিয়া চৌধুরী। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, সার্জেন্ট আহাদের বড় ভাই আনোয়ার গ্রপ অব ইন্ড্রাষ্টিজের নির্বাহী পরিচালক এম এ হান্নান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) হেলেনা পারভীন,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা জিয়াউল হোসেন,সাধারণ সম্পাদক মো.ফজলুল হক , সার্জেন্ট আহাদের বড় ভাই স্থানীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি এমএ হাকাম হীরা প্রমুখ।

সার্জেন্ট আহাদের জন্ম নালিতাবাড়ী শহরের কাজী পরিবারে। বাবা আব্দুল আলী ও মা আমেনা খাতুন। চার ভাই তিন বোনের মধ্যে আহাদ ছিলেন পঞ্চম। ১৯৮৫ সালে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় থেকে গ্রন্থাগারিক বিজ্ঞানে এমএ ডিগ্রি অর্জন করার পর ওই বছরই পুলিশ সার্জেন্ট পদে যোগ দেন। তিনি চাকুরীর পাশাপাশি জড়িয়ে ছিলেন নাটক ও সংস্কৃতি চর্চ্চার সঙ্গে। ১৯৯১ সালে বিয়ে করেন অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচীকে। তাঁদের লামিছা রিমঝিম নামে একমাত্র কন্যা সন্তান রয়েছে।

১৯৯৯ সালের ২৮ অক্টোবর তার মৃত্যুতে ঢাকা সহ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। ২৯ অক্টোবর মীরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবি গোরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়।

সার্জেন্ট আহাদকে স্মরণীয় করে রাখতে ওই সময়েই গুলিস্তান পুলিশ বক্সটির নাম করণ করা হয় সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ ব্ক্স। আউটার ষ্টেডিয়ামে গুলিস্তানের হকাররা স্থাপন করেন একটি স্মৃতি ফলক। তার নাটকের গ্রপ নাট্যচক্র ঢাকা ও জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যতত্ব বিভাগে চালু করা হয় সার্জেন্ট আহাদ বৃত্তি।

সার্জেন্ট আহাদ: বীরত্ব গাথা স্মৃতি ফলকে শেষ দিকে লেখা হয়েছে, ‘যতদিন ভোগাই থাকবে বহমান, সবুজ বৃক্ষরাজিতে বিকশিত হবে কচি পাতা, প্রাঙ্গন মুখরিত থাকবে পাখির কলকাকলিতে, ততদির রবে তোমার বীরত্ব গাথা।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।