1. admin@somoyerahoban.com : somoyerahoban :
বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
নালিতাবাড়ীর গোপাল সরকার সাংগঠনিক সম্পাদক হওয়ায় বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের শুভেচ্ছা নালিতাবাড়ীতে বৃদ্ধাকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়ার ভিডিও ভাইরাল, কারাগারে পুত্রবধূ ও নাতি। নালিতাবাড়ীতে ওয়ার্কার্স পার্টির কমরেড অমল সেন স্বরণে শীতবস্ত্র বিতরণ নালিতাবাড়ীতে বিটিসিএল অফিস বেহাল,টেলিফোন সংযোগ বিহীন । শেরপুরে ওয়ার্কার্স পার্টির শীতবস্ত্র বিতরণ ঝিনাইগাতীতে বিনাচিকিৎসায় ৮বছর ধরে শিকলে বন্দি ভারসাম্যহীন আখি পাবলিক বাসে চড়ে ঢাকায় ফিরলেন মতিয়া চৌধুরী “ছোট দেশ হলেও বড় বড় দেশ যা করে আমরা তাদের চেয়ে পিছিয়ে নেই”মতিয়া চৌধুরী নালিতাবাড়ীতে সংরক্ষণের অভাবে গণকবর নদীতে বিলীন হওয়ার পথে ! নালিতাবাড়ীতে কমিউনিস্ট পার্টির সম্মেলন অনুষ্ঠিত

নালিতাবাড়ীতে মেয়রের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলণ

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২৩ Time View

নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি
শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরসভার মেয়রের বিরুদ্ধে জমি সংক্রান্ত দুটি বেসরকারী টেলিভিশনে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। এই প্রতিবেদনকে মিথ্যা,মনগড়া ও মেয়রকে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগে সোমবার দুপুরে নালিতাবাড়ী ব্যবসায়ী সমিতি ও জমির মালিকের উদ্যোগে তারাগঞ্জ মধ্যবাজার ট্রাক মালিক সমিতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলণ করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি বাদল সাহার সভাপতিত্বে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জমির মালিক (ছোট ভাই) মিঠু ঘোষ। এসময় তিনি উল্লেখ করেন ২০০৪ সালে মৃত শমশের পঞ্চাতের কাছ থেকে শহরের মধ্যবাজার এলাকায় ১০ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। পরে ২০০৫ সালে আল-আমিন বেকারীর মালিক শফিকুল ইসলামের কাছে দুই বছরের জন্য চুক্তি করা হয়। এভাবে আল-আমিন বেকারী প্রায় ১৬ বছর ভাড়া থাকেন। কিন্ত ঘর ভাড়ার ৪০ হাজার ও দোকানের মালামাল ক্রয় বাবদ ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা মালিক পক্ষ পান। এর মধ্যে দোকানের বিদ্যুৎ বিল হিসেবে ৫০ হাজার টাকা বকেয়া রয়েছে। গত ১৫ এপ্রিলে দোকানের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়। এসময় দোকানের বকেয়া টাকা চাইলে শফিকুল অস্বীকার করেন।
পরে ঘরের মালিক (তিন ভাই) দিনবন্ধু,জগবন্ধু ও মিঠু ঘোষ পৌরসভার মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিকের কাছে বিচার দাবী করলে গত ১৮ আগষ্ট তারাগঞ্জ মধ্যবাজার ট্রাক মালিক সমিতির কার্যালয়ে দুই পক্ষকে নিয়ে বসেন। বিচারে শফিকুল ইসলাম দেড় মাসের মধ্যে দোকান ঘর ছেড়ে দেওয়া এবং বকেয়া প্রতিমাসে মেয়রের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকা করে পরিষোধের কথা বলেন। দেড় মাস সময় অতিবাহিত হলেও দোকান না ছাড়ায় গত ৩০ সেপ্টেম্বর মেয়র ও নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) বছির আহমেদ ভাড়াটিয়া শফিককে পৌরসভা কার্যালয়ে ডেকে এনে ১ অক্টোবর দোকানে থাকা সকল মালামাল সড়ানোর নির্দেশ দেন। কিন্ত দোকানের মালামাল না সড়ানোর ফলে মেয়র ও নালিতাবাড়ী থানার পুলিশের উপস্থিতিতে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বের করে দিয়ে দোকানে তালা ঝুলিয়ে দেন।
গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভাড়াটিয়া শফিক তার লোকজন নিয়ে ঘরে তালা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করেন। এসময় জমির মালিক প্যানেল মেয়র সুরঞ্জিত সরকারকে খবর দেন। পরে মেয়রের উপস্থিতিতে তার লোকজন ভাড়াটিয়া শফিক ও তার লোকজনকে মালামাল সহ দোকান থেকে বের করে দেন।
শফিক এই ঘটনায় সিসিটিভি ফুটেজ নিয়ে জেলার দুইজন সাংবাদিককে দিয়ে দোকানের ভাড়াটিয়াসহ সত্তুর উর্ধ নারীকে গলা ধাক্কা দিয়ে মেয়র দোকান থেকে বের করা নিয়ে একটি প্রতিবেদন করান। এসময় শফিক নিজেকে পলাতক থাকার কথা উল্লেখ করেন।

জমির মালিক (বড় ভাই) দিনবন্ধু ঘোষ বলেন, আমি মেয়র ও পুলিশের সহযোগিতা চেয়েছি। মেয়র আমাকে সহযোগিতা করায় ভাড়াটিয়া মেয়রের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক সংবাদ করিয়েছে। একজন জনপ্রতিনিধিকে এভাবে মিথ্যা ঘটনায় অসন্মান করায় সকল ব্যবসায়ী ও হিন্দু সম্প্রাদায়ের মানুষ এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
কপিরাইট © 2020 somoyerahoban.com একটি স্বপ্ন মিডিয়া সেন্টার প্রতিষ্ঠান।