1. admin@somoyerahoban.com : admin :
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০২:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
বিয়ের গোসল টাও পেলাম না। শেষ গোসল টাও পাব না। অনেক ভালোবাসি তোমাকে শিপন। নালিতাবাড়ীতে বিদ্যুতের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ রাইসকুকারে রান্না করাই কাল হলো গৃহবধুর নালিতাবাড়ীতে আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের স্বাক্ষী বীরাঙ্গনা করফুলি বেওয়ার ইন্তেকাল ৫১ প্রতিষ্ঠানের সবাই ফেল,না‌লিতাবাড়ী‌তে এক‌টি মাদরাসা র‌য়ে‌ছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নালিতাবাড়ীতে চেয়ারম্যান পদে ৪ জনের মনোনয়ন পত্র দাখিল তাপপ্রবাহের কারণে স্কুল-কলেজে ৭ দিনের ছুটি ঘোষণা নালিতাবাড়ীতে অপরিকল্পিত ভাবে বালু উত্তোলণে প্রাণ গেলো বসিরের না‌লিতাবাড়ী‌তে ৪৪০ বস্তা ভারতীয় চিনিসহ গ্রেপ্তার ৪ নালিতাবাড়ী স্বাশিপের উপজেলা কমিটি প্রকাশ

নালিতাবাড়ীতে ৫ দিন ধরে নিখোঁজ মাদরাসার ছাত্র

রিপোর্টার
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৪ জুলাই, ২০২৩
  • ৯০ বার

নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি
শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার মো.রুবেল মিয়া(১৪) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্র পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। বিভিন্ন যায়গায় খোঁজাখুজি করে না পেয়ে নালিতাবাড়ী থানায় রুবেলের পিতা মো.আবুল হাশেম একটি সাধারণ ডায়রি(জিডি) করেছেন। রুবেলের মা ছেলের ছবি নিয়ে বুকচাপড়াচ্ছেন আর আহাজারি করছেন।
জানাগেছে,উপজেলার নয়াবিল ইউনিয়নের ডাক্তারগোপ এলাকার মো.আবুল হাশেমের সন্তান মো.রুবেল মিয়াকে নালিতাবাড়ী মধ্যবাজার রহমানীয়া হাফেজিয়া মাদরাসায় হেফজখানায় পড়তে দেন। মাদরাসায় হেফজখানা ও নুরানী শাখায় ২৭৫ জন থাকা খাওয়ার সকল ব্যাবস্থা মাদরাসায়। প্রায় ছয় বছর ধরে রুবেল এই মাদরাসায় পড়ালেখা করছেন। ইতিমধ্যে রুবেল ২২ পাড়া কোরআন মুখস্ত করে ফেলেছেন। কোরবানি ঈদের ছুটিতে রুবেল বাড়ীতে আসে। ৭ জুলাই মাদরাসা খুলে। কিন্ত রুবেল ৮ জুলাই বাড়ী থেকে মাদরাসায় যায়। ৯ জুলাই মাদরাসায় ক্লাশ করে রাতে ঘুমিয়ে পড়ে। রুবেলের চাচাতো ভাই রবিউল পাশের সিটে ঘুমায়। সখালে ফজর নামাজের সময় রবিউল উঠে দেখে রুবেল তার বিছানায় নাই। মাদরাসার শিক্ষক সকাল ৯ টার সময় ক্লাশ হাজিরায় তাকে অনুপস্থিত পায়। রাতে আবার হাজিরায় তার অনুপস্থিতির পর শিক্ষক রবিউলকে ডেকে তার বাড়ীতে ফোন দিয়ে জানানো হয়। রুবেলের বাবা তাৎক্ষনিক এসে দেখে এবং আত্মীয় স্জন সহ বিভিন্ন যায়গায় খোঁজ করে না পেয়ে ১১ জুলাই নালিতাবাড়ী থানায় একটি জিডি করেন।
রুবেলের পিতা মো.আবুল হাশেম কলেন, মাদরাসা থেকে ফোন পেয়ে আমি সহ এলাকার অনেক লোকজন মাদরাসায় এসেছিলাম। পওে আত্মীয় সজন সহ বিভিন্ন যায়গায় খোঁজ করছি। কিন্ত এ পর্যন্ত কোথাও খোঁজ পাইনি। পুলিশ এসে মাদরাসার সিসি ফুটেজ দেখে ওই দিনের কোন ফুটেজ নাই। মনিটর বন্ধ পাওয়া গেছে।
মাদরাসার দায়িত্বপ্রাপ্ত মো.ইসমাইল হোসেন বলেন,এই মাদরাসায় পোনে তিনশত ছাত্র লেখাপড়া করে। আমরা প্রতিদিন দুইবার রোল কল করি। প্রথম কলে অনুপস্থিত থাকায় কøাশ শিক্ষক মনে করেছে হয়ত ওয়াশ রুমে গেছে। রাতে আবার রোল কলে না পেয়ে রুবেলের বাড়ীতে জরুরী খবর জানানো হয়। আর ওইদিন ফ্যান ঠিক করতে মেকার এসে সিসি টিভির সুইচ অফ করে রাখায় কোন রেকর্ড নাই।
নালিতাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মো.এমদাদুল হক বলেন, নিখোঁজের বাবা থানায় একটি জিডি করেছে। আমরা তাৎক্ষনিক মাদরাসায় গিয়েছিলাম। সারাদেশে ওই ছেলের ছবি সহ মেসেজ পাঠানো হযেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত...